ব্রিটেন EU দেশ সমূহের মাঝে ভিসা ব্যবস্থা কঠোর করছে

by adilzaman on নভেম্ভর ২৯, ২০১৩পোস্ট টি ৪৩৮ বার পড়া হয়েছে in ইউরোপের সংবাদ

এতদিন ইউরোপীয় ইউনিয়ন ভুক্ত দেশ সমূহ ব্রিটেনে আগমন এবং কাজ করার ক্ষেত্রে বিশেষ সুবিধা পেয়ে আসলেও ব্রিটিশ সরকার এই সুবিধা কঠোর করতে যাচ্ছে।

ইউরোপীয় ইউনিয়নের welfare rules নামের এই ব্যবস্থায় ইউরোপীয় ইউনিয়ন ভুক্ত ২৮ টি দেশের মাঝে আলাদা একটি ব্যবস্থা চালু ছিল যেখানে এসব দেশের জনগণ এক দেশ থেকে অন্য দেশে যেতে বা বসবাস করতে এবং সেখানে থেকে কাজ করতে পারত এক্ষেত্রে ভিসা ব্যবস্থা এবং প্রবাস আইন অনেকটাই সহজ ছিল তবে সম্প্রতি ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরুন জানিয়েছেন ব্রিটেন এই welfare rules এর ক্ষেত্রে কিছু কড়াকড়ি আরোপ করবে।

ব্রিটিশ প্রধান মন্ত্রীর বিবৃতি থেকে জানা যায় এই কড়াকড়ি প্রাথমিক ভাবে Romania এবং Bulgaria এর জনগণের জন্য শুরু হয়েছে তবে বাদ বাকী অন্যান্য ২৫ টি দেশের জন্য এই কড়াকড়ি আগামী জানুয়ারির এক তারিখ থেকে শুরু হবে।

বর্তমানে Romania এবং Bulgaria সহ অন্যান্য ইউরোপীয় ইউনিয়ন ভুক্ত দেশ সমূহ ব্রিটেনে আগমনের পর কাজ করতে কিংবা থাকতে কোন রকম কড়াকড়ির আওতায় পড়তেন না। ব্রিটিশ প্রশাসনের যুক্তি হচ্ছে এই রকম সুযোগ সুবিধার ফলে বিভিন্ন দেশের থেকে আসা বিভিন্ন লোক এর সুবিধা নিয়ে ব্রিটেনে নানান অনৈতিক কাজে জড়িয়ে যেতেন একই সাথে কাজ না করেও ভাতা গ্রহণ সহ ভিক্ষাবৃতি পেশা হিসেবে নিতেন। অনেকেই welfare rules এর আওতায় ব্রিটেন এসে প্রথম ৩ মাস কোন কাজ না করে ভাতা গ্রহণ করতেন এবং ৩ মাস শেষ হলে তারা ভিক্ষাবৃতি পেশা হিসেবে নিতেন, এই ধরণের ঘটনা সাথে Romania এবং Bulgaria এর প্রবাসীরা বেশি জড়াতেন।

ডেভিড ক্যামেরুন বলেন, “welfare rules এর কারণে ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের ২৮ দেশ থেকে প্রচুর অভিবাসী অপেক্ষাকৃত দরিদ্র দেশ থেকে ধনী দেশে চলে আসছে এতে আমরা খতিগ্রস্থ হচ্ছি, ব্রিটেনের জনগণ শান্তিতে থাকতে চায়, আপনি একটি ভালো পরিবেশ নিয়ে থাকুন তাহলে কোন সমস্যা নেই কিন্তু আপনি ব্রিটেনের সুবিধা দেয়াকে ব্রিটেনের দুর্বলতা হিসেবে নিলে আমরা তা হতে দেবনা।

এদিকে ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের কর্মসংস্থান কমিশনার এই বিষয়ে বলেন, “এটা অনেকটা অতিরিক্ত প্রতিক্রিয়া দেখাচ্ছে ব্রিটেন, আপনি একই সাথে একই আইনে স্বাক্ষর করেছেন যেখানে এই সংঘঠনের ২৮ টি দেশ এক সাথে স্বাক্ষর করেছে তাহলে এক এক দেশের জন্য এক এক নীতি কখনোই ন্যায্য ব্যবস্থা নয়।”একটি জরিপে দেখা যায় welfare rules চালুর আগে অর্থাৎ ২০০৭ সালের আগে ব্রিটিশ সরকার ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন ভুক্ত দেশ সমূহ থেকে আগত প্রবাসীদের থেকে প্রাপ্ত ট্যাক্স বর্তমান সময়ে welfare rules চালুর পর প্রাপ্ত ট্যাক্স থেকে অনেক বেশি ছিল। ফলে অনেকেই এই কারণকেই ব্রিটেনের এই কঠোর নীতি গ্রহণের পেছনে মূল প্রতিপাদ্য হিসেবে বিবেচনা করছেন।

চলুন দেখে নিই পৃথিবীর কোন দেশ থেকে কি পরিমাণ প্রবাসী বর্তমানে ব্রিটেনে অবস্থান করছেঃ

সূত্রঃ বিবিসি

[[ আপনি জানেন কি? আমাদের সাইটে আপনিও পারবেন আপনার নিজের লেখা জমা দেওয়ার মাধ্যমে আপনার বা আপনার এলাকার খবর তুলে ধরতে এই লেখায় ক্লিক করে জানুন এবং  তুলে ধরুন। নিজে জানুন এবং অন্যকে জানান। আর আমাদের ফেসবুক ফ্যানপেজে রয়েছে অনেক মজার মজার সব ভিডিও সহ আরো অনেক মজার মজার টিপস তাই এগুলো থেকে বঞ্চিত হতে না চাইলে এক্ষনি আমাদের ফেসবুক ফ্যানপেজে লাইক দিয়ে আসুন। এবং আপনি এখন থেকে প্রবাস জীবনে আমাদের সাইটের মাধ্যমে আপনার যেকোনো বেক্তিগত জিনিসের ক্রয়/বিক্রয় সহ সকল ধরনের বিজ্ঞাপন ফ্রিতে দিতে পাড়বেন। ]]

InstaForex *****লেখাটি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুণ!*****

সম্পর্কিত আরো কিছু পোস্ট দেখতে পারেন...

সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় বাংলাদেশ কনস্যুলেটের জাকজঁমক পূর্ণ স্বাধীনতা দিবস উদযাপন
এক নজরে ২০১৪ সালের বিশ্বের সবচেয়ে নিরাপদ/বিপদজনক এয়ারলাইন্স!
মাইগ্রেশন এন্ড ডেভেলপমেন্ট ফোরামের চেয়ারম্যান হচ্ছে বাংলাদেশ : রাষ্ট্রদূত শামীম
অল ইউরোপিয়ান বাংলাদেশ এসোসিয়েশন (আয়েবা)’র ২০১৫ সালের অ্যাওয়ার্ড পাচ্ছেন যাঁরা
পোল্যান্ডে‘বিউটিফুল বাংলাদেশ’কেলেংকারি : ডিজিটাল যুগে এনালগ জালিয়াতি
রোহিঙ্গা গণহত্যা বন্ধে জেনেভায় আয়েবার ব্যাপক কর্মসূচী

এই লেখাটি লিখেছেন...

– সে এই পর্যন্ত 154 টি পোস্ট লিখেছেন এই সাইট এর জন্য আমিওপারি ডট কম.

লেখকের সাথে যোগাযোগ করুন !

আপনার মন্তব্য লিখুন

{ 0 comments… add one now }

Leave a Comment