ইতালি ও ইউরোপের প্রবাসিদের জন্য লেখাটি পরুন এবং প্রতারণার হাত থেকে বাঁচুন।

by Lesar on জানুয়ারী ১৭, ২০১৪পোস্ট টি ৬৭০ বার পড়া হয়েছে in ইতালিতে আমাদের নিত্য প্রয়োজনীয় তথ্য

প্রিয় আমিওপারি পাঠক বৃন্দ আশা করি আপনারা সবাই ভালো আছেন। আজকে আমরা আপনাদের সাথে খুব গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয় নিয়ে আলোচনা করবো। আমাদের আজকের বিষয় অনলাইন প্রতারনা থেকে বাঁচার কিছু উপায়। প্রতারণা কথার সাথে আমরা সবাই কম বেশি পরিচিত, জীবনে প্রতারণার ফাঁদে পরেননি এমন মানুষ খুব কমি রয়েছে। হতে পারে এটি বাংলাদেশে বা সুদূর এই প্রবাসে। তবে এই প্রতারণার কলা-কৌশল কিন্তু দেশর উপর নির্ভর করে ভিন্ন ভিন্ন রকমের হয়ে থাকে। যাই হোক যেহেতু আমরা এখন প্রবাসে রয়েছি তাই প্রবাসের কিছু প্রতারণারাকারীর কলা-কৌশল নিয়ে আলোচনা করবো। যা আপমাদের অনেক ধরনের বিপদের হাত থেকে রক্ষা করবে। ইতালি ও ইউরোপের কিছু হ্যাকার চক্র রয়েছে তারা অনলাইনে বিভিন্ন পদ্ধতি অবলম্নন করে সাধারন মানুষের ক্ষতি করে থাকে। যেমন একটি চক্র রয়েছে তারা আপনার ইমেইলে একটি ইমেইল পাঠাবে এবং সেই ইমেইলটি যারা নরমাল ইউজার তারা সনাক্ত করতে পারেনা যে আসলে এই ইমেইল তার কাছে কোথাথেকে এসেছে। যেমন ওরা যখন আপনাকে ইমেইল করবে সেই ইমেইলে বড় বড় নাম করা ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের নাম ব্যবহার করবে এবং এতো গুছিয়ে সেই পেজটাকে সাজাবে যে ওদের সনাক্ত করা অনেক কঠিন হয়ে দাড়ায়। ওরা আসলে টার্গেট করে তাদের যারা ক্রেডিট কার্ড বা ডেবিট কার্ড ব্যবহার করেন! তাদের। কেননা বর্তমান যুগ টেকনোলোজির যুগ এবং আমাদের প্রায় প্রতিটি ক্ষেত্রেই অনলাইন বা ইন্টারনেট এর উপর নির্ভরশীল হতে হচ্ছে। কেননা ইন্টারনেট আজকে পুরো বিশ্ব আমাদের হাতের মুঠোয় এনে দিয়েছে। কাজেই এটি যেমন আমাদের অনেক উপকারে আসছে তেমনি এটি আবার অনেক সময় আমাদের অনেক বড় বিপদের ফেলে দিচ্ছে, যদি আমরা এর সঠিক ব্যবহার করতে না পারি।

যেমন একটি উধাহরন দেওয়া যেতে পারে, ধরুন আপনি একটি স্মার্ট ফোন ক্রয় করলেন সামসাং গ্যালাক্সি বা আইফোন, তো আমরা জানি এই স্মার্ট ফোনে আমাদের চাহিদা মেটাতে লাখো লাখো প্রোগ্রাম বা অ্যাপ্লিকেশান রয়েছে কিন্তু এই অ্যাপ্লিকেশান গুলো ক্রয় করার জন্য কিন্তু প্রথমেই আমাদের একটি অ্যাপেল বা গুগলের আইডি থাকতে হবে এবং অ্যাপেল বা গুগল এর অ্যাপ ষ্টোর থেকে যেকোনো অ্যাপ ক্রয় করতে আপনার একটি ক্রেডিট বা ডেবিট কার্ড ব্যবহার করতে হবে। আর এই হ্যাকার চক্রটি নানা কৌশলে ফেলে আমাদের এই ক্রেডিট বা ডেবিট কার্ড এর মুল্ল্যবান তথ্য জেনে নিয়ে আমাদের কার্ড এর টাকা হাতিয়ে নেয়। যা কিনা আমরা জানতেও পারিনা। এখন আপনি বলতে পারেন আমি অনলাইনে কার্ড ব্যবহার করবো না? কিন্তু যদি আপনি ওদের ভয়ে এরকম চিন্তা করেন তাহলে আপনাকে আবার ২০০ বছর পিছনে চলে যেতে হবে এবং বর্তমানে মানুষ যুগের সাথে তালে তাল মিলিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে, আর আপনাকে থাকতে হবে সেই বাব দাদার আমলে লাঙ্গল দিয়ে হাল চাষ করার যুগে। যাই হোক ওরা যতই চালাক হোক না কেনো আপনি যদি একটু সতর্ক হয়ে চলেন তাহলে ওরা সতচেষ্টা করেও আপনার কিছু করতে পারবে না। তাহলে আসুন দেখি ওরা কিভাবে আপনাকে ওদের জালে ফেলবে এবং কিভাবে আপনি ওদের জ্বাল থেকে নিজেকে রক্ষা করবেন।

যেভাবে প্রতারণা করেঃ
ওরা আপনাকে বা আপনাদের ইমেইল সংগ্রহ করে সেখানে ইমেইল পাঠাবে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের নামে ভুয়া ইমেইল ও পেজ তৈরি করে,যেমন এটি হতে পারে আপনার ব্যাংক থেকে, পোস্ট অফিস থেকে,অ্যাপল সেন্টার থেকে,ফেসবুক থেকে ইত্যাদি সহ আরো বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের নামে। ওরা আপনাকে মেইল দিয়ে এরকম বলবে। (আপনার কার্ড সিকিউরিটির জন্য ব্লক করে দেওয়া হয়েছে তাই আপনাকে ২৪ ঘণ্টার মদ্ধে এটি একটিভ করে নিতে হবে বা এর তথ্য আপডেট করতে হবে, এবং একটিভ করার জন্য আমাদের দেওয়া ইমেইলের পেইজে আপনার আইডি ও পাসওয়ার্ড দিয়ে লগ ইন করুন।) এবং আপনি যখনি আপনার আইডি ও পাসওয়ার্ড দিয়ে সেখানে লগইন করবেন, করার সাথে সাথে আপনার আইডি ও পাসওয়ার্ড ওদের কাছে চলে যাবে। এবং তখনি ওরা এর অপব্যবহার করবে। কেননা ওরা আপনাকে যেখানে লগ ইন করার জন্য বলবে সেটিকে ইন্টারনেট ভাষায় ফিশিং(Phishing) বলা হয় মানে মাছ ধরার জ্বাল ওরা আপনার জন্য জ্বাল পেতে বসে থাকে, যখনি আপনি ওদের জালে টোক দিবেন, দেওয়ার সাথে সাথে ওরা আপনাকে ধরে ফেলবে। অনেকে যারা নতুন তাদের মনে হয়তো প্রস্ন আসতে পারে এই ফিশিং জিনিসটা আসলে কি? আপনাদের সহজ ভাবে বুঝিয়ে দেওয়া হচ্ছে ফিশিং(Phishing) মানে কি বা এটার মাধ্যমে তারা কিভাবে আপনাকে জালে ফেলে। ফিশিং(Phishing) হচ্ছে যেকোনো একটি ওয়েবসাইট এর হুবুহু নকল করে ভুয়া একটি সাইট বানানো। ধরুন ওরা আপনাকে ইমেইলে আপনার ব্যাংক এর একটি এড্রেস দিয়ে পাঠালো এবং বললো এখানে লগ ইন করতে। তো আপনি যখন লগ ইন করার জন্য ওই পেজে বা ওয়েব সাইতে যাবেন তখন কিন্তু আপনার কাছে মনে হবে যে আপনি সত্যি সত্যিই আপনার ব্যাংক এর ওয়েব সাইতে যাচ্ছেন। কেননা ওরা আপনার বাংক এর ওয়েব সাইট এর মত করে নকল করে হুবুহু একটি ফিশিং(Phishing)সাইট বানিয়ে রেখেছে যা আপনি বুঝতে পারবেন না। এবং ইমেইলে দেওয়া সতর্কবার্তার সাথে মিল রেখে আপনি যখন দেখেবেন আসলেই তো এটা তো আমার ব্যাংক এর ওয়েব সাইট-ই লাগছে, আর আপনার ব্যাংক মনে করে আপনিও নিশ্চিন্তে আপনার সকল লূকানো তথ্য দিয়ে লগ ইন করতে যাবেন। আর লগইন করার পর দেখবেন সেখানে আর কোন কাজ হচ্ছে না বা নরমাল ভাবে লগ ইন করলে যেমন অন্য পেজ ওপেন হয় এখানে কিন্তু সেরকম অন্য পেজ আর ওপেন হবে না। আর এভাবেই আপনি লগইন করার সাথে সাথে ওদের কাছে আপনার লগইন এর সকল তথ্য চলে যাবে। সহজ ভাষায় এটিই হোল ফিশিং(Phishing)। এটি যেকোনো ওয়েব সাইট কে হুবুহু নকল করে বানানো যেতে পারে।

আপনাদের আরো ভালো করে বুঝানোর জন্য এখানে আমাদের কাছে আশা এরকম একটি ইমেইল তুলে ধরলাম।

Salve,
Le informazioni relative al tuo Apple ID dovranno essere aggiornate nelle prossime 24 ore, Eventuali modifiche verranno visualizzate immediatamente sul tuo Id APPLE, effettua questa operazione ora iforgot.apple.com. Per rivedere e aggiornare le tue impostazioni di sicurezza, accedi aappleid.apple.com.
Messaggio automatico; non rispondere direttamente a questa e-mail. Per ulteriore assistenza, visita il Apple Support.

Grazie,
Servizio Clienti Apple

উপরের ইমেইলে ভালো করে লক্ষ করুন ওখানে ওরা বলছে যে ২৪ ঘণ্টার মদ্ধে আমাকে আমার অ্যাপেল আইডি আপডেট করতে বলছে। এবং সেখানে ওরা কিছু লিঙ্ক দিয়ে দিয়েছে। আমি যখনি ওদের কথা মতো ওই লিঙ্কে ক্লিক করবো করার সাথে সাথে আমাকে হুবুহু অ্যাপেল এর মতো ওদের বানানো একটি ফিশিং(Phishing) সাইতে নিয়ে যাবে এবং সেখানে আমার সকল তথ্য দিতে বলবে। তো এই জিনিসটি যারা বুঝতে পারবেন না এবং সেই ফর্মটি পূরণ করবেন তারাই ফেঁসে গেলেন ওদের জালে। উল্লেখ্য এই ইমেইল শুধু ইতালিয়ান ভাষায় নয় ওরা আপনার দেশের সাথে মিলিয়ে ওই দেশের ভাষায় আপনাকে এই মেইল গুলো পাঠাবে। তো বন্ধুরা আশা করি আপনাদের বুঝাতে পেরেছি। এবার আমরা জানবো কিভাবে এদের হাত থেকে নিজেকে রক্ষা করা যায়।

ওদের জ্বাল থেকে নিজেকে রক্ষা করার উপায়ঃ
১- প্রথমেই আপনার মনে রাখতে হবে যে, কখনোই আপনার বাংক বা এরকম বড় প্রতিষ্ঠান আপনাকে কখনোই ইমেইল পাঠিয়ে আপনার কার্ড এর বিস্তারিত দিতে বলবে না।

২- যদি কখনো আপনার কাছে এরকম কোন ইমেইল আসে তাহলে আপনি সরাসরি যে প্রতিষ্ঠানের নামে ইমেইল এসেছে ওদের সাথে যোগাযোগ করে জানবেন সত্য ঘটনা কি।

৩- এরকম ইমেইলের পাল্লায় পড়ে কখনোই আপনার সিক্রেট তথ্য দিয়ে ওদের পেজ বা সাইতে লগ ইন করবেন না।

৪- যদি আপনি বুঝতে না পারেন তাহলে আপনার পরিচিত এবং বিসশস্থ কোন বন্ধুর সাহায্য নিতে পারেন।

৫- এরকম কোন ইমেইল আসলে সবার প্রথম এটিকে ডিলিট করে ফেলুন।

উপরের কাজ গুলো ঠিক মতো মেনে চললে আশা করি আপনি ওদের হাত থেকে নিজেকে অনেকটা বাঁচাতে পারবেন। ধন্যবাদ।

এরকম আরো গুরুত্তপূর্ণ তথ্য পেতে আমাদের সাথেই থাকুন আমাদের পরিবারের একজন সদস্য হয়ে, এবং আমাদের সম্পর্কে আপনার পরিচিতদের জানিয়ে দিন জাতে ওরাও এসব তথ্য পেয়ে উপকৃত হয়।

[[ আপনি জানেন কি? আমাদের সাইটে আপনিও পারবেন আপনার নিজের লেখা জমা দেওয়ার মাধ্যমে আপনার বা আপনার এলাকার খবর তুলে ধরতে এই লেখায় ক্লিক করে জানুন এবং  তুলে ধরুন। নিজে জানুন এবং অন্যকে জানান। আর আমাদের ফেসবুক ফ্যানপেজে রয়েছে অনেক মজার মজার সব ভিডিও সহ আরো অনেক মজার মজার টিপস তাই এগুলো থেকে বঞ্চিত হতে না চাইলে এক্ষনি আমাদের ফেসবুক ফ্যানপেজে লাইক দিয়ে আসুন। এবং আপনি এখন থেকে প্রবাস জীবনে আমাদের সাইটের মাধ্যমে আপনার যেকোনো বেক্তিগত জিনিসের ক্রয়/বিক্রয় সহ সকল ধরনের বিজ্ঞাপন ফ্রিতে দিতে পাড়বেন। ]]

InstaForex *****লেখাটি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুণ!*****

সম্পর্কিত আরো কিছু পোস্ট দেখতে পারেন...

পাঁচজনের পরিবারবর্গকে ইতালির সরকার থেকে ১৪০ ইউরোর চেক দেওয়া হবে প্রতিমাসে।
দারুন অফার ইতালি প্রবাসিদের জন্য না পড়লে চরম মিস! আর মাত্র চার দিন বাকি?
কিভাবে ইতালিতে বিভিন্ন সার্টিফিকেট বা ডকুমেন্টস বৈধকরণ তথা LEGALIZZAZIONE বা LEGALIZATION করাবেন?
ইতালিতে বিবাহবিচ্ছেদ সম্পর্কে বিস্তারিত। কিভাবে করবেন? কতো সময় পর আবার বিয়ে করতে পারবেন ইত্যাদি ইত্য...
ইতালিতে বাঙ্কার অথবা যেকোনো ব্যবসায়ে ইচ্ছুক প্রবাসিদের জন্য প্রয়োজনীয় কিছু তথ্য।অবশ্যই পড়ুন?
ঘরে বসে কিভাবে কমুনে'র কাজের জন্য এপয়েন্টমেন্ট নিতে হয়।

সম্পর্কিত আরো কিছু পোস্ট দেখতে পারেন...

এই লেখাটি লিখেছেন...

– সে এই পর্যন্ত 1175 টি পোস্ট লিখেছেন এই সাইট এর জন্য আমিওপারি ডট কম.

আমিওপারি নিয়ে আপনাদের সেবায় নিয়োজিত একজন সাধারণ মানুষ। যদি কোন বিশেষ প্রয়োজন হয় তাহলে আমাকে ফেসবুকে পাবেন এই লিঙ্কে https://www.facebook.com/lesar.hm

লেখকের সাথে যোগাযোগ করুন !

আপনার মন্তব্য লিখুন

{ 0 comments… add one now }

Leave a Comment