পর্তুগালে কিভাবে অবৈধ থেকে বৈধ হবেন?সম্পূর্ণ প্রসিডিউর সহ ইউরোপে অবৈধ ভাবে বসবাসরত সকল প্রবাসীদের জন্য সতর্কতা মূলক পোস্ট।

by Lesar on ফেব্রুয়ারী ২৩, ২০১৫পোস্ট টি ১৭,৫০০ বার পড়া হয়েছে in ইউরোপ ও অন্যান্য দেশের ইম্মিগ্রেশন তথ্য

যুবরাজ শাহাদাতঃ গত ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ প্রথম আলো পত্রিকায় দুর-প্রবাসে কলামে জইনেক বাংলাদেশী পর্তুগালে ইমিগ্রেশন নিয়ে একটি পোস্ট করেছিলেন লিঙ্ক টা নিচে দিলাম – (http://bit.ly/1Jsn0B)  প্রথম আলোর সেই পোস্টটি পড়ার পর ইউরোপে বসবাসরত অবৈধ অসংখ্য বাংলাদেশী বিশেষ করে ইতালি, ফ্রান্স,ইউকে অবস্থানরত ভাইবোনদের কাছ থেকে আমরা প্রচুর পরিমান মেসেজ ও ফোন পেয়েছি। যে বান্দা উপরের পোস্টটি প্রথম আলোতে দিয়েছেন, তিনি নিতান্তই শুধু তার ক্রেডিট বাড়ানোর জন্য বৈকি আর কিছুই নয়। সেই লেখায় আসল সত্যটি তিনি ক্লিয়ার করেন নি। আর তাই ইউরোপে বসবাসরত অবৈধ অসংখ্য বাংলাদেশী প্রবাসীদের মনে নানা ধরণের ভুল ধারণার জন্ম নিচ্ছে।
আর সেই বিষয়ের উপর লক্ষ্য করেই আজ আমরা সম্পূর্ণ বিষয়টি আপনাদের মাঝে তুলে ধরবো, যারা পর্তুগালে অবৈধ অভিবাসী থেকে কিভাবে বৈধ হবেন তা জানতে চেয়েছেন? তাদের জন্য প্রথমে আমার ২০১৩ সালে লেখা পর্তুগাল সম্পর্কে এই পোস্টটি পড়ে নেয়া উচিত।  এখানে ক্লিক করুণ যা আমাদের আমিওপারি ডট কম সাইটে সবচেয়ে পঠিত আর্টিকেল। প্রকাশের পর আজ পর্যন্ত ৩৬ হাজার লোক পড়েছেন। পর্তুগাল সম্পর্কে আমিওপারিতে প্রকাশিত সর্বাধিক পঠিত লেখাটি পড়ার পর অনেকের মনে নানা ধরণের প্রশ্ন জাগতে পারে!! আর তাই নিচে সংক্ষেপে পর্তুগালের বৈধকরণ প্রক্রিয়ার মুল শর্ত বা প্রসিডিউর বর্ণনা করা হল। যার মাধ্যমে আপনি পরিপূর্ণ একটি ধারণা অর্জন করতে পারবেন।

আপনারা অনেকেই জানেন যে ইতালি তে কয়েক বছর অন্তর অন্তর Amnesty International ও ইতালিয়ান ইমিগ্রেশনের অধীনে ইতালিতে অবস্থিত অবৈধ অভিবাসীদের বৈধকরনের জন্য ডিক্ল্যার দিয়ে থাকেন কিছু শর্তের ভিত্তিতে। যেটা একেক বছর একেক রকমের হয়ে থাকে।যেমন গতবার ডিক্লেয়ারের সময় শর্ত বেধে দেয়া হয়েছিল নির্ধারিত সময়, উদাহরন স্বরূপ বলা যায় তারা একটা টাইম বেধে দিল যে আপনাকে ২০১২ সালের ডিসেম্বর মাসের মধ্যে ইতালিতে প্রবেশ করেছেন এমন সব প্রমানাধি দেখাতে হবে।যদি আপনি এমিনেস্টী ইন্টারন্যাশনাল এর অধীনে ইতালিতে পেপারস নিতে চান।

আবার যেমন ২০১২ সালে পোল্যান্ডে ও এমিনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল ডিক্ল্যার দিয়েছে, কিছু শর্তের ভিত্তিতে অনেকটা ইতালিয়ান শর্তের মতই। তবে পর্তুগালের ক্ষেত্রে ব্যাপারটা সম্পূর্ণ ভিন্ন একটি বিষয়। আর পর্তুগালের বিষয়টা ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন থেকে একটা ডাইরেক্টটিভ বা আইন পাশ করা যার ভিত্তিতে পর্তুগাল অবৈধ অভিবাসীদের বৈধ করে যাচ্ছেন ২০০৭ সালের জুলাই মাস থেকে। পর্তুগালে ইতালির মত কোন ডালাউ ডিক্লেয়ার দেয় নাই, আর দিবে ও না। যারা উল্লেখিত শর্ত পুরন করবে তারা সবাই পর্তুগালে বৈধ হতে পারবে যে বিষয় গুলো আগের পোষ্টে উল্লেখ করে দেওয়া হয়েছে। পোস্টটা একটু খেয়াল করেন পড়ে আসুন তাহলে আরও ভালো করে বুঝতে পারবেন উপরের লিঙ্ক থেকে অথবা এখানে ক্লিক করেও পড়ে নিতে পারেন।

যাই হোক এবার নিচের শর্তাবলী গুলো ভালো করে লক্ষ্য করুণ এবং এই শর্তাবলী পুরনের ফলে আপনারা যেকেউ পর্তুগালে বৈধ হতে পারবেন।

১- আপনাকে ইউরোপে বৈধভাবে প্রবেশ করেছেন তার প্রমানাধি দেখাতে হবে অর্থাৎ আপনাকে ইউরোপের সেঞ্জেন ভুক্ত যেকোনো দেশের ভিসা নিয়ে ইউরোপে প্রবেশ করতে হবে। (তবে সাইপ্রাস, রোমানিয়া, বুলগেরিয়া, ইউকে, আয়ারল্যান্ড, ক্রোয়েশিয়া এই দেশসমুহের ভিসা বাদে)

২- আর সেনজেন ভুক্ত দেশ থেকে আপনি পর্তুগালে বৈধভাবে প্রবেশ করেছেন যেমন বিমানের টিকেট, মাসের টিকেট বা ট্রেনের টিকেট ইত্যাদি দেখাতে হবে (যদিও ইমিগ্রেশন থেকে আগে এইসব চাইত না কিন্তু এখন এইসব বাধ্যতামূলক লাগবে।

৩- পর্তুগাল প্রবেশের পর আপনাকে নিজস্ব আইডেনটিফীকেশান  (পাসপোর্ট) দেখিয়ে ট্যাক্স অফিস থেকে ট্যাক্স কার্ড করিয়ে নিতে হবে। পর্তুগিজ ট্যাক্স নাম্বার . এটাকে NIF বলা হয়ে থাকে . -Número de Indentificação Fiscal (NIF) ( খরচ পড়বে ১০.২০ ইউরো ) তবে সাথে পর্তুগালে যেকোনো বৈধ ব্যাক্তির রেফারেন্স লাগবে অর্থাৎ ট্যাক্স কার্ড করতে যাদের পর্তুগাল রেসিডেন্স কার্ড আছে তাকে সাথে যেতে হবে। অন্যথায় একজন উকিল এর সাহায্য নিতে পারেন যার জন্য আপনাকে ১৫০ ইউরোর মতো গুনতে হতে পারে।

৪- মেইন প্রসিডিউর হিসাবে পর্তুগালে আপনাকে বৈধ ভাবে প্রবেশের পর জব/কাজের কন্ট্রাক্ট দেখাতে হবে মিনিমাম ৬ মাসের। আর পর্তুগালে এই জব কন্ট্রাক্ট মেনেজ করা অনেকটা দুস্কর বলা চলে। নরমালি কাগজের জন্য এই জব কন্ট্রাক্ট টাকা দিয়ে বাঙালি, পাকিস্তানি, ইন্ডিয়ান, আফ্রিকানদের কাছ থেকে কিনতে হয়। সে ক্ষেত্রে টাকার পরিমান ২০০০-২৫০০ ইউরো পর্যন্ত হয়ে থাকে (ক্ষেত্র বেধে কম বেশি হয়ে থাকে) যদি আপনার কোন বন্ধু বান্ধব, আত্মীয় স্বজন আপনাকে হেল্প করে জব কন্টাক্টে তাহলে এই টাকার খরচ থেকে বেঁচে যাবেন নিসন্দেহে।

৫- পর্তুগিজ social security number যা সংক্ষেপে NISS বলা হয়ে থাকে (.Número de Identificação de Segurança Social -NISS ) এটা আপনি যখন পর্তুগালে কোন মালিকের অধীনে কাজ করবেন বা যেকোনো দেশের মালিকের কাছ থেকে কাজের কন্ট্রাক্ট করালে এই নাম্বার পারেন।

৬- জব কন্ট্রাক্ট হাতে পাবার পর প্রত্যেক মাসে আপনাকে নিজের পকেট থেকে ১৭৫,৪৯ ইউরো ( মিনিমাম সেলারি ৫০৫ ইউরো এর জন্য এই ট্যাক্স ,তবে সেলারি বেশি দেখালে ট্যাক্স এর পরিমান বেশি হবে ) করে গুনতে হবে। নরমাল হিসাব হল আপনাকে পেপারস হবার আগ পর্যন্ত ট্যাক্স পে করতে হবে। আপনি শুদু মাত্র পেপারস পাবার জন্য কাগজে কলমে জব দেখাবেন অরিজিনালি আপনি নিজের পকেট থেকে সব টাকা খরচ করছেন। পর্তুগীজদের অধীনে জব পেলে এই সব টাকা সেভ হয়ে যাবে কিন্তু দুঃখের বিষয় পর্তুগালে অবৈধ অবস্থায় স্পেশাল কোন লিঙ্ক ছাড়া প্রাথমিক অবস্থায় পর্তুগীজ জব পাবেন না , আর ভাষাগত একটা প্রবলেম তঁ থেকেই যায়।
৭- নরমালি যারা সেনজেন ভুক্ত দেশের ভিসা নিয়ে পর্তুগাল প্রবেশ করবে তারা মিনিমাম ৬ টা ট্যাক্স দেয়ার পর ইমিগ্রেশনে রেসিডেন্স পারমিট এর জন্য আবেদন করতে পারবে। সব ডকুমেন্টস ঠিক থাকলে কপাল অতিশয় ভাল হলে ৬ টা ট্যাক্স দিয়েই রেসিডেন্স পারমিট পেয়ে যার তবে আবার অনেকের ক্ষেত্রে ৬ থেকে ১২ মাস পর্যন্ত সময় লেগে যায়। আর যারা বিশেষ করে ভিসা ছাড়া অর্থাৎ সাদা পাসপোর্ট নিয়ে পর্তুগাল প্রবেশ করেছেন তারা ২০১৩ সালের আগে পর্যন্ত রেসিডেন্স পেতে লিগ্যালভাবে পর্তুগালে অনেক সময় লেগে যেত কিন্তু ২০১৪ সাল থেকে সেই আইনে কিছুটা পরিবর্তন এনেছে পর্তুগীজ বর্ডার অ্যান্ড ফরেইনার সার্ভিস (http://www.sef.pt/) ২০১৩ সালের আগে সাদা পাসপোর্টে এন্ট্রি যাদের পর্তুগালে তারা মিনিমাম ১৮-২৪ মাস ট্যাক্স পে করতে হত যা বর্তমানে ১২ থেকে ১৮ তে পরিবর্তন করা হয়েছে । এখন ভিসা ছাড়া যারা যারা পর্তুগালে পেপারস করতে চান তারা এই সুত্র অনুসরন করতে হবে অর্থাৎ আপনাকে মিনিমাম ১২-১৮ টি ট্যাক্স পে করে রেসিডেন্স পারমিট এর জন্য আবেদন করতে হবে ।

৮- আরও কিছু ডকুমেন্টস লাগবে সেই বিষয় গুলো এখানে আলাদা ভাবে বুঝিয়ে দেওয়া হল।

  • বাংলাদেশী পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট। দেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রলায় থেকে সত্যায়িত করে আনার পর পর্তুগিজ ভাষায় অনুবাদ করে বাংলাদেশ এম্বেসী অফ লিসবন থেকে সত্যায়িত করতে হবে।
  • পর্তুগাল এর পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট + ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন এর পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট। ২ টা সার্টিফিকেটই একই অফিস থেকে তুলতে হয়। পর্তুগালের লিসবনে Loja do cidadão নামে একটা অফিস আছে ওই অফিস থেকে ওই সার্টিফিকেট ২ টা তুলতে পারবেন। ২ টার জন্য ১২ ইউরো খরচ হবে।
  • আপনি যদি অন্য কোন দেশে ৬ মাসের বেশি অবস্থা করেন যেমন লন্ডন, সাইপ্রাস আয়ারল্যান্ড রোমানিয়া এই সকল দেশে ছাত্র ছিলেন পরে সেনজেন ভিসা নিয়ে ইউরোপ ডুকেছেন তাদের ক্ষেত্রে যে যেই দেশে অবস্থা করেছেন ওই ওই দেশের পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট লাগবে বাধ্যতামূলক। কিংবা ইতালিয়ান ভিসা নিয়ে ইতালি এসেছেন ৬ মাসের ও বেশি সময় ইতালি কাটিয়েছেন তাদের ক্ষেত্রেও ইতালিয়ান পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট লাগবে। অন্য কোন ভাষায় হলে সেটা কে ট্রান্সলেট করে শুধু নোটারি করতে হবে।
  • আপনি যে ৬ টি ট্যাক্স প্রদান করেছেন সেটার সার্টিফিকেট যা  Social security office থেকে আপনি যতবার খুশি বিনা পয়সায় তুলতে পারবেন। তবে সেটার জন্য লম্বা লাইন দাড়াতে হবে।
  • Proof of address  আপনি যে মিউনিসিপালিটি তে থাকেন সেখান থেকে এই সার্টিফিকেট টা নিতে হবে . junta de freguesia এই অফিস থেকে নিতে হবে। আপনি যে এরিয়াতে থাকেন ওই খানকার junta de ফ্রেগুএসিয়া থেকে নিতে ১০ ইউরো খরচ পড়বে। তবে ৩ দিন আগে আবেদন করতে হবে। এক দিনে ও নিতে পারেন তবে ৩০ ইউরো চার্জ দিতে হবে।

৯- আপনার ফাইল ইমিগ্রেশন পোর্টালে এন্ট্রি করার পর আপনাকে একটা আই.ডি ও গোপন নম্বর দেয়া হবে . ওই নম্বর ও আইডি নির্দিষ্ট জায়গায় (www.sef.pt) প্রবেশ করে আপনি আপনার ফাইল চেক করতে পারবেন। এরা যদি আপনাকে ইন্টারভিউ এর তারিখ দেয় তাহলে ও আপনি দেখতে পাবেন। সাধারণত অনলাইন তারিখ প্রদানের পর ঠিক ওই দিন ই ইমিগ্রেশন থেকে আপনাকে কল করবে। ইন্টারভিউ এর তারিখ পাওয়ার পর উপরোক্ত ডকুমেন্টস সহ টাইম মত ইমিগ্রেশন অফিস এ হাজির হতে হবে। তখন তারা যদি সব ডকুমেন্টস দেখে ওকে মনে করে তাহলে ফিঙ্গার প্রিন্ট নিয়ে নিবে রেসিডেন্স পারমিট এর জন্য। ঠিক ওই সময়টাটে আপনাকে ৮৯০ ইউরো অ্যাপলিকেশন ফি দিতে হবে ইমিগ্রেশন অফিস কে। যেহেতু আপনি ভাষা পুরোপুরি আয়ত্তে আনতে পারবেন না তাই আপনার সাথে একজন লয়ার-উকিল সাথে নিয়ে যাওয়া ভাল। উকিল আপনার কাছ থেকে আপনার শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত সকল পরামর্শ ও কাজ করে দিবে চার্জ নিবে ২০০-৩০০ ইউরো।

সারাংশঃ আমরা বাঙালি হুজুগে মাতাল বিষয়টা কম বেশি সবার জানা। শুনা কথায় কান দেই বেশি সত্য মিথ্যা যাচাই করি কম। যে লোক প্রথম আলোতে ২/৪ লাইন পর্তুগাল সম্পর্কে লিখছে তাতে হাজারো প্রবাসি ছুটতে শুরু করেছে, কথা চালাচালি শুরু করেছে এর থেকে অর। ভিতরের কাহিনি সে কিছুই জানাই নাই যার কারনে অনেকে বিষয়টা নিয়ে পরিষ্কার না। আশা করি এই পোস্ট পড়ার পর সকলেই বিষয়টি সম্পর্কে বুঝতে পেরেছেন।এবং আমরা আশা করি যে, এখন থেকে আপনিও আপনার বন্ধুদের বলতে পারবেন যে এখন “আমিওপারি” পর্তুগালে লিগ্যাল হওয়ার বিষয় সম্পর্কে বিস্তারিত বলে দিতে।

শেষ করার আগে পর্তুগাল রেসিডেন্স পারমিট পেতে হলে কত খরচ হবে তার একটা ছক বা হিসাব দিয়ে দেই সবার সুবিদারথে ।

ট্যাক্স কার্ড করতে – ১০.২০ ইউরো (উকিল এর সাহায্য নিলে ১৫০ ইউরো )
জব কন্ট্রাক্ট – ২০০০-২৫০০ ইউরো
ট্যাক্স প্রতি মাসে – ১৭৫,৪৯ ইউরো ( মিনিমাম ৬-১০ মাস পে করতে হবে ধরে রাখেন যাদের পাসপোর্টে ভিসা রয়েছে)
ইমিগ্রেশন ফ্রি -৮৯০ ইউরো
লয়ার এর ফ্রি -৩০০ ইউরো
লিভিং এক্সপেন্স – ২০০ ইউরো প্রতি মাসে ।
টোটাল ——————– হিসাবটা আমি নাই করলাম যার দরকা করে নিবেন।

উল্লেখ্য পর্তুগালে লিগ্যাল হওয়ার সম্পর্কে যেকোনো ধরণের হেল্প বা প্রয়োজনে আপনারা সরাসরি আমিওপারি টিম এর সাথে যোগাযোগ করতে পারেন। আর আমাদের সাথে যোগাযোগ করার বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন।

আর যারা আপনাদের ফেসবুকে আমিওপারির প্রতিটি লেখা পেতে চান তারা এখানে ক্লিক করে আমাদের অফিশিয়াল ফেসবুক পেজে গিয়ে লাইক দিয়ে রাখতে পারেন। তাহলে আমিওপারিতে প্রকাশিত প্রতিটি লেখা আপনার ফেসবুক নিউজ ফিডে পেয়ে যাবেন। ধন্যবাদ।

InstaForex *****লেখাটি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুণ!*****

সম্পর্কিত আরো কিছু পোস্ট দেখতে পারেন...

ভিসা কি? জেনেনিন ভিসা সম্পর্কে বিস্তারিত কিছু তথ্য।
নতুন ভাবে কড়াকড়ি করা হয়েছে ব্রিটিশ ভিসায়। ভিসার অপব্যবহার বন্ধ করতেই এই পরিবর্তন আনা হয়েছে।
আমি ইতালিয়ান বা ইউরোপের পাসপোর্ট ধারী! আমি কি New Zealand  যেতে পারবো? না ভিসা লাগবে?
যারা ইতালিতে নাবালক বা এসাইলাম প্রার্থী হিসেবে কাগজ এর জন্য আবেদন করেছেন তাদের প্রসঙ্গে সতর্কবার্তা।
কিভাবে পর্তুগালে গোল্ডেন রেসিডেণ্ট পারমিট পাওয়া যাবে ? আমি কি এর যোগ্য ?
পোল্যান্ডে কিভাবে স্টুডেন্টস ভিসা/পারমিট থেকে জব ভিসা/পারমিটে পরিবর্তন করবেন?

সম্পর্কিত আরো কিছু পোস্ট দেখতে পারেন...

এই লেখাটি লিখেছেন...

– সে এই পর্যন্ত 1149 টি পোস্ট লিখেছেন এই সাইট এর জন্য আমিওপারি ডট কম.

আমিওপারি নিয়ে আপনাদের সেবায় নিয়োজিত একজন সাধারণ মানুষ। যদি কোন বিশেষ প্রয়োজন হয় তাহলে আমাকে ফেসবুকে পাবেন এই লিঙ্কে https://www.facebook.com/lesar.hm

লেখকের সাথে যোগাযোগ করুন !

আপনার মন্তব্য লিখুন

{ 10 comments… read them below or add one }

asik ফেব্রুয়ারী ২৩, ২০১৫ at ২:৩৬ অপরাহ্ণ

Vaia ami Italy thaki amar soggiorno r meyad 2 bosor asee ami ki europian je kono desh a job korte parboo seta jante chassi ?

Reply

Lesar ফেব্রুয়ারী ২৩, ২০১৫ at ৭:২৪ অপরাহ্ণ

ইতালির নরমাল পেরমেসসো দি সৌজর্ন্য দিয়ে আপনি ইউরোপের কোথাও লিগ্যাল ভাবে কাজ করতে যেতে পারবেন না। তবে কার্টা দি সৌজর্ন্য হলে ইউরোপের বিভিন্ন দেশে সেটা দিয়ে কাজ করতে পারবেন। তবে ডেনমার্ক, ইউকে এবং আয়ারল্যান্ড এই তিনটি দেশ বাদে।

Reply

quamrul মার্চ ২, ২০১৫ at ৩:৫৮ অপরাহ্ণ

Lesar bro.apner Facebook I’d ta ki??

Reply

tapas pal মার্চ ২৯, ২০১৫ at ৫:৩৬ পুর্বাহ্ন

ভাই, বাংলাদেশ থেকে কি পর্তুগালের ভিসা নিয়ে প্রবেশ করা যায় বা আপনারা কোন ভাবে কোন প্রসেসিং করেন?

Reply

rigan মার্চ ২৯, ২০১৫ at ২:১৪ অপরাহ্ণ

hi

Reply

MOSHARAF HOSSAIN মার্চ ২৯, ২০১৫ at ৪:৫২ অপরাহ্ণ

How can I joining your website ? Plz can you tell me

Reply

Lesar মার্চ ৩১, ২০১৫ at ৮:৫১ অপরাহ্ণ

Contact with us … our email address is: info@amiopari.com

Reply

sajib এপ্রিল ৪, ২০১৫ at ৬:৫৩ পুর্বাহ্ন

Lesar bro,Bangladesh thaka ki Italy ER টুরিস visa niya Italy যাওয়া যায়।

Reply

Nazmus Sadat জুন ২৭, ২০১৫ at ৬:১৩ পুর্বাহ্ন

ভাই, পর্তুগালে ভাষা তো পর্তুগীজ? তো, যদি ভাষার উপর মোটামুটি দক্ষতা থাকে সেই ক্ষেত্রে কাজ পাওয়ার সুযোগ কেমন?

ধন্যবাদ

Reply

mustofa জুলাই ১৫, ২০১৫ at ১:৪৯ পুর্বাহ্ন

17500 every month. does that mean they have to pay 175000 euro as tax all together?

Reply

Leave a Comment