সুইডেনের ইতিহাসে সর্বপ্রথম মাইকে আযান দেওয়া হোল

by Lesar on জুন ২, ২০১৩পোস্ট টি ৩৭০ বার পড়া হয়েছে in ইউরোপের সংবাদ

সুইডেনের ইতিহাসে ৩১ মে ২০১৩ একটা ঐতিহাসিক দিন। এই দিন থেকে  ফিতয়া মসজিদে জুমার আজান বাইরের মাইকে দেয়া শুরু হলো। সুইডেনের প্রায় সকল মুসলিম নেতৃবৃন্দ  এই মসজিদে জুমার নামাজ পড়েছেন।

সুইডেনের রাজধানী স্টকহোমে’র বটরিকা অঞ্চলের ইসলামিক ইউনিয়নের প্রধান ইসমাঈল উগুর, সুইডেনের দৈনিক ‘ডাগেন’কে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে বলেন : আমরা জীবনের পুরোটা সময় সুইডেনে পার করেছি; কর প্রদান করেছি; আদর্শ নাগরিক হিসেবে নির্বাচিত হয়েছে এবং সুইডেনের বিভিন্ন কাজে আমরা অগ্রনী ভূমিকা রেখেছি; এখন আমাদের সামান্য আবেদন রয়েছে, আমরা ধর্ম স্বাধীনতা চাই।

তিনি বলেন : চলতি বছরের শুরুর দিকে স্টকহোমের একটি মসজিদ হতে আযান প্রচারের অনুমোদনের জন্য আবেদন করি। সংশ্লিষ্ট অধিদপ্তর বিভিন্ন দিক পর্যালোচনা ও পর্যবেক্ষণের পর অবশেষে ১৯৯৪ সালে পাশ হওয়া আযান প্রচারের উপর নিষেধাজ্ঞা শীর্ষক আইন বাতিলের প্রাথমিক সম্মতি প্রদান করা হয়েছে।এ আইন পাশের মাধ্যমে মুসলমানরা অবশেষে এ শহরের মসজিদ হতে আযানের ধ্বনি শোনার সৌভাগ্য অর্জন করতে যাচ্ছে।জনাব উগুর বলেন : সুইডেনের মুসলমানরা অন্তত জুমআর দিনের জামাতের নামাযের আযান শুনতে চায়। আর সেই মতোই ৩১ মে ২০১৩ থেকে সুইডেনের ইতিহাসে সর্বপ্রথম মাইকে আযান দেওয়া হোল।


[[ আপনি জানেন কি? আমাদের সাইটে আপনিও পারবেন আপনার নিজের লেখা জমা দেওয়ার মাধ্যমে আপনার বা আপনার এলাকার খবর তুলে ধরতে জানতেএখানে ক্লিক করুণতুলে ধরুন  নিজে জানুন এবং অন্যকে জানান ]]

*****লেখাটি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুণ!*****

সম্পর্কিত আরো কিছু পোস্ট দেখতে পারেন...

গ্রীসে রোজগারের নতুন পথ শামুক চাষ এনিয়ে দেখুন একটি ভিডিও
ভূয়া রোহিঙ্গারা চায় না ডেনমার্কে বাংলাদেশ দূতাবাস প্রতিষ্ঠিত হোক!!
সুইজারল্যান্ডে প্রবাসী বাংলাদেশীদের সাথে মতবিনিময়ে শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু
বাংলাদেশীদের কল্যানই যাঁদের ধ্যান-জ্ঞান-সাধনা
বৈদেশিক শ্রমবাজারের বারোটা বাজিয়ে গেলেন তিনি!!!
বাংলাদেশ গ্লোবাল সামিটের সাফল্য কামনায় ২৪ কূটনীতিক (ভিডিও লিঙ্ক সংযুক্ত)

এই লেখাটি লিখেছেন...

– সে এই পর্যন্ত 1155 টি পোস্ট লিখেছেন এই সাইট এর জন্য আমিওপারি ডট কম.

আমিওপারি নিয়ে আপনাদের সেবায় নিয়োজিত একজন সাধারণ মানুষ। যদি কোন বিশেষ প্রয়োজন হয় তাহলে আমাকে ফেসবুকে পাবেন এই লিঙ্কে https://www.facebook.com/lesar.hm

লেখকের সাথে যোগাযোগ করুন !

আপনার মন্তব্য লিখুন

{ 0 comments… add one now }

Leave a Comment