বাংলাদেশ থেকে ইউরোপে পড়াশুনা করতে আসার আগে জেনে নিন সঠিক তথ্য

by Lesar on জুলাই ২৭, ২০১৩পোস্ট টি ২,৩৮৩ বার পড়া হয়েছে in ইউরোপ ও আন্নান দেশে উচ্চ শিক্ষা

বাংলাদেশ থেকে অনেকে ইউরোপটাকে স্বপ্নের রাজ্য মনে করে থাকে , কিন্তু সঠিক পথে ও দিক নির্দেশনায় এগুতে না পারলে ইউরোপের এই স্বপ্ন রাজ্য অনেকের জন্য অভিশাপ বলে মনে হবে। আমাদের দেশ থেকে এক সময় প্রচুর ছাত্র বিলেতে পাড়ি জমাতেন উচ্চশিক্ষা গ্রহনের জন্য। যুক্তরাজ্য অভিবাসন কর্তিপক্ষের মতে গত ১ দশকে ইংল্যান্ড এ পাড়ি জমিয়েছেন এমন বাংলাদেশী ছাত্র-ছাত্রীর সংখা ২-৪ লাখের কাছাকাছি হবে। শুধু মাত্র ২০০৯ -২০১০ সালে এসেছে ৪৫-৬০ হাজার ছাত্র –ছাত্রী। এখন প্রশ্ন হলে এত ছাত্র-ছাত্রী আসার কারণ কি ? কারণ টা একটু ভাবলে পাওয়া যাবে ২০০৯ সালের মে মাস থেকে যুক্তরাজ্য স্টুডেন্ট ভিসার ক্ষেত্রে এক নতুন পরিবর্তন আনে। Tier – 4 নামে স্টুডেন্ট ভিসা প্রবর্তনের কারণের একজন ছাত্র অতি সহজে ছাত্র হয়ে যুক্তরাজ্যে প্রবেশের অধিকার পায়। এই ক্ষেত্রে কোন ধরনের ইংরেজি ভাষার দক্ষতা প্রমানের দরকার নেই, শুধু মাত্র উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার সার্টিফিকেট থাকলেই যুক্তরাজ্যে যাওয়ার সুযোগ পেতেন। ইউনিভার্সিটিতে ভর্তির ক্ষেত্রে এককালীন পরিশোধ করতে হত বিশাল অংকের টাকা। এত সব কিছু করার পেছনে একটাই উদ্দেশ্য জীবনটাকে ভালো একটা জায়গায় দাড় করানো , পড়াশুনার পাশাপাশি চাকুরী করে কিছু টাকা ইনকাম করে নিজের ভবিষৎ টাকে উজ্জল করা। কিন্তু বর্তমান সময়ের চিত্রটা সম্পুর্ন ভিন্ন।

যেই স্বপ্ন নিয়ে তারা ইউরোপ আসে তার সাথে বাস্তবতার কোন মিল নেই। এক দিকে কলেজের বাড়তি টিউসন ফী আর একদিকে কাজের ক্ষেত্রে পুলিশ এর ঝামেলা সব মিলিয়ে ভালো নেই যুক্তরাজ্যের ছাত্ররা। যাই হোক এটা হলো লন্ডনের কথা। এবার আসি সেন্ট্রাল ইউরোপের কথায়। বর্তমান সময়ে একটা জিনিস লক্ষ করার মত যে বাংলাদেশী ছাত্ররা বিনা বেতনে অধ্যয়ন করা যায় এমন সব দেশ গুলোতে আগ্রহী হয়ে ওঠেছেন , যেমন জার্মানি , ফিনল্যাণ্ড ,নরওয়ে । গত বছর গুলোতে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক ছাত্র-ছাত্রী জার্মানি ও ফিনল্যাণ্ড এ পাড়ি জমিয়েছেন । তার কারণ হলো পড়াশুনার ক্ষেত্রে ইউনিভার্সিটি গুলো কোন টিউসন ফী দাবি করে না, সম্পুর্ন ফ্রী তে আপনি পড়াশুনা করতে পারচ্ছেন। অন্যদিকে কাজের ক্ষেত্রে ও ইউরোপিয়ান আইন অনুযায়ী যত ঘন্টা করার অনুমতি আছে সেটা করতে কোন সমস্যা নাই। তবে ইউরোপের আসার ক্ষেত্রে অনেকে আবার দালালের খপ্পরে পরে অনেক টাকা পয়সা নষ্ট করে। এই সব দেশে গুলো আসতে হলে ইউনিভার্সিটি কর্তিপক্ষকে কোন প্রকার টাকা পয়সা প্রদান করতে হয় না কিন্তু কতিপয় বাংলাদেশী এজেন্ট ১০০% ভিসা করিয়ে দিবে বলে অনেকে ছেলে পেলের কাছ থেকে হাতিয়ে নিচ্ছে বড় অংকের টাকা। বিশেষ করে জার্মানির ক্ষেত্রে এমন ঘটনা অহরহ ঘটতেছে, অনেক টাকার বিনিময়ে স্টুডেন্টস ভিসার কথা বলে ভাষা শিক্ষা  কোর্সের ভিসা দিয়ে পাঠিয়ে দেয়া হচ্ছে জার্মানিতে, সঠিক দিক নির্দেশনার অভাবে এমনটি ঘটতেছে।

তাই ইউরোপের বিভিন্ন দেশে অধ্যয়নরত ছাত্র-ছাত্রী মিলে ইউরোপ আসতে ইচ্ছুক ভাই-বোনদের জন্য সম্পুর্ন ফ্রি ইনফরমেশন সার্ভিস দিতে চালু করা হয়েছে এই সাইট আমিওপারি ডট কম। আমাদের টিমের সকল এডমিন গন ইউরোপের বিভিন্ন দেশে অধ্যয়নরত আছে, তারা বাংলাদেশী যে সকল স্টুডেন্টসরা ইউরোপে আসার কথা ভাবছে তাদের কে সঠিক দিক নির্দেশনা দিয়ে থাকে। আপনি এখানে জেনে নিতে পারবেন ইউরোপ আসার আগে ও পরে কি কি করনীয়। ইউনিভার্সিটি ভর্তির তথ্য ,স্কলারশিপ ও অভিবাসন সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য। আমাদের উদ্দেশ্য একটাই সকল বাংলাদেশী যারা ইউরোপ পড়াশুনা কিংবা চাকুরী নিয়ে আসতে ইচ্ছুক তাদের কে সঠিক পথ দেখানো, কেউ যেন দালালের খপ্পরে না পড়ে। সব ধরনের সেবা পেতে হলে যুক্ত হন আমাদের ফেইসবুক গ্রুপ ও পেজে আশা করি আপনদের কাংখিত বিষয় গুলো আপনি সেখান থেকে জেনে নিতে পারবেন । link: আমিওপারি ডট কম  

*****লেখাটি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুণ!*****

সম্পর্কিত আরো কিছু পোস্ট দেখতে পারেন...

ইটালিতে শেফ ডিপ্লোমা
নরওয়েতে উচ্চশিক্ষাঃ স্টাডি ইন নরওয়ে নিয়ে বাস্তারিত
স্টুডেন্ট ভিসা নিয়ে যারা কানাডা আসতে চান তাদের জন্য কিছু টিপস!!
ইউরোপে উচ্চ শিক্ষার জন্য IELTS-পরীক্ষা দিতে চাইলে নিচের তথ্যগুলো জানতেই হবে আজ কিংবা কালঃ
২০১৭ তে ডেনমার্কে পড়াশোনা,কিভাবে কি করবেন? প্রতারণা থেকে সাবধান!
ইটালি'তে স্টুডেন্ট ভিসায় বাংলাদেশ নিষিদ্ধ!!জেনে নিন বিস্তারিত।

এই লেখাটি লিখেছেন...

– সে এই পর্যন্ত 1155 টি পোস্ট লিখেছেন এই সাইট এর জন্য আমিওপারি ডট কম.

আমিওপারি নিয়ে আপনাদের সেবায় নিয়োজিত একজন সাধারণ মানুষ। যদি কোন বিশেষ প্রয়োজন হয় তাহলে আমাকে ফেসবুকে পাবেন এই লিঙ্কে https://www.facebook.com/lesar.hm

লেখকের সাথে যোগাযোগ করুন !

আপনার মন্তব্য লিখুন

{ 1 comment… read it below or add one }

Muhammad Tara Miah ফেব্রুয়ারী ১৩, ২০১৫ at ৪:৫১ অপরাহ্ণ

i am mr tara miah

Reply

Leave a Comment